মেইন ম্যেনু

৫০০ ও ২০০০ টাকার নোট মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে এক নয়া পন্থা নিল চিন!

image

বড় নোট বাতিল হওয়ার পর থেকে ব্যাঙ্ক ও এটিএম কাউন্টারগুলিতে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। টাকার অভাবে স্বভাবতই ব্যাহত হয়েছিল জনজীবন। ব্যাঙ্কে টাকা থাকলেও টাকার জন্য হয়রানির শিকার হয়েছিলেন সাধারণ মানুষ। কারণ, গত কয়েকদিন যাবৎ দেশের বেশিরভাগ এটিএম কাউন্টার অচল হয়ে পড়েছিল। নতুন নোট বাজারে এলেও তা যে পর্যাপ্ত পরিমাণে সবার কাছে পৌঁছয়নি, সেকথা বলাই বাহুল্য। আবার ২০০০ টাকার নোট হাতে পেলেও হয়রানি পিছু ছাড়েনি মানুষের। ২০০০ টাকার নোট ভাঙাতে গিয়েও চরম সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকে।

এতকিছু সত্ত্বেও চিন কিন্তু সকলের হাতে হাতে ৫০০ ও ২০০০ টাকার নোট পৌঁছে দিতে এক নয়া পন্থা অবলম্বন করেছে। বেশ কিছুদিন আগে বাজারে দেখা গিয়েছিল পুরুষদের মানিব্যাগে ৫০০ টাকার নোটের ছবি। ভারতার টাকার ছবি পার্স-এ ছেপে বাজারে ছাড়ার এই কায়দা চিনের ব্যাগ প্রস্তুতকারকদের কাছে নতুন কিছু নয়। এমনটা আগেও হয়েছে। এবারে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল হয়ে যাওয়ায়, মহিলাদের মানিব্যাগে দেখা গেল নতুন ৫০০ ও ২০০০ টাকার ছবি। ভিতরে যা-ই থাকুক না কেন, বাইরে জ্বল জ্বল করছে নতুন নোট। পুং-মানিব্যাগে এমনটা না হলেও মহিলা-পার্সে বাজারে আসার আগেই এসে গিয়েছে ৫০০ আর ২০০০-এর নোট। হোক না ‘কেবলই ছবি’। ঘ্রাণে অর্ধভোজন বলে কহাবত। এখন চিনের দৌলতে দর্শনে ধনলাভও বলা যেতে পারে।