মেইন ম্যেনু

‌বিএন‌পি‌কে আমন্ত্রণ জানা‌ল আ.লীগ

Awami bnp logo

দলের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে আওয়ামী লীগ।

বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টায় আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাসের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে এই আমন্ত্রণপত্র দেয়।

তারা মির্জা ফখরুলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এই আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর করেন। এ সময়ে দলের কেন্দ্রীয় নেতা শামসুজ্জামান দুদুসহ অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলে ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, সহসম্পাদক রিয়াজুল কবীর কাওসার, হাসান তারিক আরিফ ও আনিসুর রহমান।

বিএনপির মহাসচিব প্রতিনিধিদলের সঙ্গে কুশল বিনিময় করে তাদের চা-চক্রে আপ্যায়ন করেন।

পরে মৃণাল কান্তি দাস সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আমন্ত্রণ জানাতে এখানে এসেছি। দাওয়াত দিয়েছি। আশা করি তারা আমাদের আমন্ত্রণ গ্রহণ করে সম্মেলনে যোগ দেবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘গণতন্ত্রের চর্চা ও রীতিনীতিকে সামনে রেখে আমরা আমাদের জাতীয় সম্মেলনে দেশের সকল রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। বাদ রেখেছি শুধু স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি, বঙ্গবন্ধু হত্যার আত্মস্বীকৃতি কোনো শক্তি অথবা এদেশের সাবভৌমত্ব ও স্বাধীনতায় যারা বিশ্বাস করে না তাদেরকে। এ ছাড়া সকল রাজনৈ‌তিক দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি, যাতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মহান মিলন ক্ষেত্রে রূপান্তরিত করতে পারি।’

এর আগে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলটি নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে এসে পৌঁছালে দলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহদপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন ও বেলাল আহমেদ তাদের অভ্যর্থনা জানান।

আগামী শনিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সকাল ১০টায় আওয়ামী লীগের দুই দিনব্যাপী ২০তম জাতীয় কাউন্সিল শুরু হবে।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে গত ১৯ মার্চ বিএনপির এক দিনব্যাপী ষষ্ঠ জাতীয় সম্মেলন হয়েছিল, যাতে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে আমন্ত্রণ জানালেও তাদের কেউ যোগ দেননি।