মেইন ম্যেনু

প্যারিস থেকে শুরু হল ‘আয়নাবাজি’র বিশ্বভ্রমণ

ainabazi-home

অমিতাভ রেজা চৌধুরীর সিনেমা ‘আয়নাবাজি’ সম্প্রতি জার্মানির আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ম্যানহাইম-হাইডেলবার্গে প্রশংসিত হয়েছে। ১৭ নভেম্বর সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে প্যারিসের বিখ্যাত পাবলিসিস সিনেমা হলে। এই হলে ছবি মুক্তির মধ্য দিয়েই শুরু হলো ‘আয়নাবাজি’র ওয়ার্ল্ড ট্যুর।

বৃহস্পতিবার ফ্রান্সের প্যারিসের পাবলিসিস হলে বসে উদ্বোধনী শো উপভোগ করেন ছবিটির প্রযোজক জিয়াউদ্দিন আদিল, পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও কাহিনীকার গাউসুল আলম শাওন।

নির্মাতা জানালেন, পুরো সপ্তাহ আয়নাবাজির ১৪টি শো প্রদর্শিত হবে।

এ প্রসঙ্গে অমিতাভ রেজা বলেন,“সবাই জানেন সিনেমাটি নিয়ে আমরা বিশ্বভ্রমণে বেরিয়েছি। ফেরিওয়ালার মতো ঘুরে বেড়াচ্ছি ‘আয়নাবাজি’ নিয়ে। দেশের মানুষ সিনেমাটি পছন্দ করেছেন। ভালো লাগছে, দেশের বাইরেও প্রশংসা পাচ্ছে।”

প্রসঙ্গত, আগামী ১৯ নভেম্বর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক, সান ফ্রান্সিসকো, অস্টিন, শিকাগো ও ডালাস শহরে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবিটি। ১৯ নভেম্বর কানাডার টরেন্টো ও ক্যালগেরি শহরের সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাচ্ছে আয়নাবাজি। ২৬ নভেম্বর থেকে অস্ট্রোলিয়ার সিডনী, কানবেরা, মেলবোর্ন, ব্রিস্টবেইন, এডিলেড ও পার্থের সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে আয়নাবাজি।

সিনেমাটির ওয়ার্ল্ড ট্যুর প্রসঙ্গে আয়নাবাজির প্রযোজক, জিয়াউদ্দিন আদিল বলেন ‘মুক্তির ৭ সপ্তাহ পরেও এখনও ব্যবসাসফল আয়নাবাজি। আয়নাবাজি আজ সারা দেশে ব্যাপক সফলতা অর্জনের পর সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। আমার দৃঢ় বিশ্বাস আয়নাবাজি সারা বিশ্বে গৌরবময় সফলতা অর্জন করবে। সিনেমা প্রদর্শনের প্রচলিত ধারায় বাংলাদেশি কোনো ছবি ফ্রান্স, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকার বক্স অফিসে মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি আমাদের দেশের জন্য অত্যন্ত গৌরব ও সম্মানের।’

সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাবিলা, লুৎফর রহমান জর্জ, হিরা চৌধুরী, শওকত ওসমান, গাওসুল আলম শাওন। চলচ্চিত্রটির মূল ভাবনা গাওসুল আলম শাওনের। চিত্রনাট্যও তিনি রচনা করেছেন, অনম বিশ্বাসের সঙ্গে যৌথভাবে। নির্বাহী প্রযোজক ছিলেন এশা ইউসুফ।