মেইন ম্যেনু

নারী অঙ্গন

‘সাংসারিক কাজের মূল্য নির্ধারণ হলে জিডিপিতে বাড়বে নারীর অবদান’

প্রতিযোগিতার বাজারে পুরুষের পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে যেমনি বেড়েছে নারীর অংশগ্রহণ, তেমনি বেড়েছে অর্থনীতিতে অবদান। তবে নারীদের কাজের সিংহভাগই আর্থিক অংকে পরিমাপ করা হয় না। এর মধ্যে নারীর সাংসারিক ও গৃহস্থালি কাজ অন্যতম। গৃহস্থালি কাজে নারীরা প্রতিদিন গড়ে প্রায় আট ঘণ্টা সময় ব্যয় করলেও অর্থমূল্যে এটা পরিমাপ না। ফলে মোট দেশজ আয়ে (জিডিপি) তাদের অবদান অগোচরেই রয়ে যায়। তাই নারীদের সাংসারিক কাজসহ অন্যান্য গৃহস্থালি কাজের আর্থিক মূল্য নির্ধারিত হলে জিডিপিতে নারীর অবদান বাড়বে বলে বিশ্লেষকরা মন্তব্য করেছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, নারীদের সাংসারিক কাজের ছায়ামূল্য নির্ধারণ করে তা জাতীয় আয়ে অন্তর্ভূক্ত করা দরকার। পাশাপাশি নারী উদ্যোক্তা বাড়াতে স্বল্প সুদে ঋণ, উচ্চপদে নারীদের সুযোগ দেয়া,বিস্তারিত