মেইন ম্যেনু

লালমনিরহাট

৪৬ বছর পর হলেন ‘ভুয়া’ মুক্তিযোদ্ধা!

লালমনিরহাটের সদর উপজেলার কুলাঘাটা ইউনিয়নের ছেলেবুড়ো সবাই জানেন তিনি একজন স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা। ঊনসত্তরের গণ-আন্দোলনের সময় ছাত্র রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন তিনি। পূর্ব পাকিস্তানের আমলে তিনি ছাত্রলীগে একমাত্র হিন্দু ধর্মালম্বীর পদধারী নেতা ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি রংপুর কারমাইকেল কলেজ ছাত্র সংসদের নির্বাচিত সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন। বলছি, মুক্তিযোদ্ধা কৃষ্ণ গোপাল রায়ের কথা। স্বাধীনতার ৪৬ বছর পর তিনি হয়ে গেলেন ‘ভুয়া’ মুক্তিযোদ্ধা! স্থানীয় রাজনৈতিক চক্রান্তের কারণে সম্প্রতি হালনাগাদ মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে তার নাম কেটে দেয়া হয়। এখন তিনি ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা! এ নিয়ে লালমনিরহাটের সর্বত্র সমালোচনার ঝড় বইছে। এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর উপজেলার ইউএনও শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির আমি একজন সদস্য। তবে তারবিস্তারিত